বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০১:০৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
Logo ‘মূল পরিকল্পনাকারী’ মুসা এখন ওমানে Logo চাকরির জন্য যেসব প্রয়োজনীয় দক্ষতায় পিছিয়ে বাংলাদেশের তরুণরা Logo যানজট: দেরিতে কর্মস্থলে ঢুকলে বেতন কাটা, যানজটে নাকাল ঢাকায় এমন নিয়ম কতটা যুক্তিসঙ্গত Logo দেশে কি সবাই শাড়ী কামিজ পড়বে? এ জন্য আমাকে মারবে?-নরসিংদীতে আক্রান্ত তরুণীর প্রশ্ন স্টেশন মাষ্টারকে Logo ইফতারে মচমচে মিষ্টিকুমড়ার চপ Logo গলায় ফাঁস দিয়ে কিশোরীর আত্মহত্যা, গোপন ছবি ছড়ানোর অভিযোগ Logo ঋণ পরিশোধ করতে না পারায় পরিবারকে ভিটেছাড়া করার অভিযোগ Logo পদ্মা সেতু চালু হবে ৩০ জুন: মন্ত্রিপরিষদ সচিব Logo পদ্মা সেতুতে খরচের চেয়ে বেশি টোল আদায় হবে: অর্থমন্ত্রী Logo আমাকে জামিন দেন, আমার স্ত্রী বাড়ির বাইরে যেতে পারে না, সবাই চোরের বউ বলে’ Logo রমজান মাসে অতি লাভ করবেন না : কাদের Logo শেখ হাসিনাকে গ্রীক প্রধানমন্ত্রীর ফোন : নেতৃত্বের প্রশংসা Logo ‘ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করতে চায় বিএনপি’: ওবায়দুল কাদের Logo রাশিয়ার খাদ্যশস্য রপ্তানি বন্ধ ৪ দেশে Logo শিশু ধর্ষণ বেড়েছে ৩১ শতাংশ আত্মহত্যা দ্বিগুণের বেশি Logo স্বামীর ঘরেই ধর্ষণের শিকার নববধূ! শ্বশুর গ্রেপ্তার Logo মামা-মামির পরকীয়া; দেখে ফেলায় আলিফের চোখ খুঁচিয়ে হত্যাচেষ্টা! Logo সয়াবিন তেলের দাম কমল Logo বাংলাদেশে ঢুকেই যে ভুলটি করে বসেন সানি লিওনি Logo লঞ্চ ডুবিয়ে দেওয়া জাহাজের চালক-স্টাফ সবাই আটক Logo উচিত শিক্ষা দিয়ে ছেড়ে দেব : ইমরান খান Logo আমরা চাই সব দল নির্বাচনে আসুক: সিইসি Logo শত শত লোকের সামনে তরুণীকে জুতাপেটা ইউপি সদস্যের Logo সাবেক রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দীন আহমদ মারা গেছেন Logo যে শর্তে মেয়েদের স্কুল খুলে দিচ্ছে তালেবান Logo নিজেদের কিশোরী মেয়ে, স্ত্রীদের দিয়ে দেহব্যবসা Logo ফরিদপুর শহরের পতিতালয় | যৌন পল্লী পরিচিতি Logo দেহ ব্যবসার ঠিকানা কোথায় হয় দেহ ব্যবসা জেনে নিন Logo সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর ব্যবসায়ীদের প্রস্তাব নাকচ Logo লভিভ সামরিক প্রশিক্ষণ গ্রাউন্ডে বিমান হামলা হয়েছে

ইউক্রেনে হামলা যেভাবে বৈধ করতে চাইছেন পুতিন

জনপ্রিয় খবর প্রতিনিধি : / ৫৩ বার পঠিত
সময়: রবিবার, ১৩ মার্চ, ২০২২, ১১:৫৭ পূর্বাহ্ণ

ওই বছরের শেষ দিকে প্রতিবেশী বেলারুশের রাজধানী মিনস্কে বিবদমান দুই পক্ষের মধ্যে যুদ্ধবিরতি চুক্তি সই হয়। তবে এর পর থেকে সাত বছর ধরেই বিভিন্ন সময় দনবাসের ইউক্রেনের সেনা ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এমনকি, সর্বশেষ গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার ‘শান্তিরক্ষা অভিযান’ শুরুর আগপর্যন্ত তা অব্যাহত ছিল। রাশিয়া যুক্তি দেখিয়ে আসছিল, দনবাসের বাসিন্দাদের সঙ্গে যা হচ্ছে, তা আসলে গণহত্যা। এ অবস্থায় সেখানকার বাসিন্দাদের সহায়তা করতে পদক্ষেপ নেওয়া মস্কোর দায়িত্ব। নিউজার্সির রটগার্স ইউনিভার্সিটির সেন্টার ফর দ্য স্টাডি অব জেনোসাইড অ্যান্ড হিউম্যান রাইটসের পরিচালক আলেকজান্ডার হিনটন বলেছেন, ‘বেসামরিক লোকজনের মধ্যে যেকোনো আকার বা ধরনেই ব্যাপক হত্যাকাণ্ড ঘটুক, তা আমাদের মনোযোগ পাওয়ার দাবি রাখে। গণহত্যা প্রতিরোধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নৈতিক ও আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তাই বিশ্ববাসীর কাছে গণহত্যার আলাদা গুরুত্ব রয়েছে।’

গণহত্যার সংজ্ঞা

গণহত্যা শব্দটি গত শতকের চল্লিশের দশকে সামনে আনেন পোলিশ আইনজীবী রাফায়েল লেমকিন। গণহত্যাকে অপরাধ হিসেবে আখ্যায়িত করতে ১৯৪৮ সালে জাতিসংঘে তদবির করেন তিনি। গণহত্যার একটি সংজ্ঞা দিয়েছে জাতিসংঘ। সেখানে বলা হচ্ছে, সম্পূর্ণ বা আংশিকভাবে একটি জাতি, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী বা ধর্মীয় গোষ্ঠীকে ধ্বংসের অভিপ্রায় নিয়ে করা কর্মকাণ্ডই গণহত্যা। এই সংজ্ঞায় শুধু ব্যাপক হারে লোকজনকে হত্যার বিষয়টিই তুলে ধরেনি জাতিসংঘ; পাশাপাশি তাদের জীবনযাত্রা ধ্বংস, মা–বাবার কাছ থেকে সন্তানকে বিচ্ছিন্ন ও আলাদাভাবে লালনপালন করা এবং গোষ্ঠীতে নতুন সদস্য জন্ম নেওয়ায় বাধা দেওয়ার বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। গণহত্যাকে এক ব্যতিক্রমী জঘন্য ধরনের অপরাধ হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে; বিশেষ করে হলোকাস্টের পর। বিভিন্ন সময় বিরোধীপক্ষের বিরুদ্ধে এমন একটি শক্তিশালী অভিযোগ উঠতে দেখা গেলেও বিরল ক্ষেত্রে সেই পক্ষ জাতীয় সম্মানের বিষয় বিবেচনায় নিয়ে তা স্বীকার করে।

রাশিয়ার সেনাবাহিনীর হামলায় ইউক্রেনের সুমি শহরের একটি বিধ্বস্ত এলাকা
রাশিয়ার সেনাবাহিনীর হামলায় ইউক্রেনের সুমি শহরের একটি বিধ্বস্ত এলাকা
ছবি: রয়টার্স

রাশিয়ার তদন্ত

ইউক্রেনের দোনেৎস্ক ও লুহানস্কে চারটি গণকবর খুঁজে পাওয়ার ঘটনায় করা একটি ফৌজদারি মামলা গত ১৬ ফেব্রুয়ারি আবার সামনে আনে রাশিয়া। ওই দুই এলাকায় আদতে যা ঘটেছিল, তা গণহত্যা কি না, তা খতিয়ে দেখতে তদন্তের প্রতিশ্রুতি দেয় মস্কো। এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত আনাতোলি আন্তোনভ ফেসবুকে প্রশ্ন রাখেন, ‘আবাসিক এলাকায় ইউক্রেনের সেনাদের গোলাবর্ষণ অথবা লুহানস্কের কাছে প্রায় ৩০০ বেসামরিক লোকের কয়েকটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া; যাদের মাতৃভাষার কারণে রুশ মনে করে হত্যা করা হয়েছিল; এর ব্যাখ্যা কী হতে পারে?’ একই সঙ্গে ইউক্রেনের দনবাসের ‘গণহত্যায়’ ওয়াশিংটনের সমর্থন ছিল বলে অভিযোগ করেন আনাতোলি আন্তোনভ। এর আগে সেখানে ইউক্রেনীয় সেনাদের নৃশংসতার বিষয়টি জাতিসংঘে তুলেছিলেন রুশ রাষ্ট্রদূত। তবে রাশিয়ার এসব অভিযোগ বরাবর উড়িয়ে দিয়েছেন মার্কিন কর্মকর্তারা। তাঁদের দাবি, এগুলো মস্কোর মিথ্যা প্রচার প্রচারণা। গণহত্যা বিষয়ে রাশিয়ার মানবাধিকার আইনজীবী নাতালিয়া সেকরেতারেভা আল-জাজিরাকে বলেন, কোনো সংঘাতে যদি ব্যাপকভাবে বেসামরিক লোকজন হতাহত হওয়ার ঘটনা না ঘটে, শুধু কিছু মানুষ হতাহত হয়, সে ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের অধীন তা মেনে নেওয়া যেতে পারে। এই সংজ্ঞার বাইরে প্রেক্ষাপট বিবেচনায় অন্য হামলাগুলোয় যুদ্ধাপরাধ, মানবতাবিরোধী অপরাধ অথবা গণহত্যার মতো ঘটনা ঘটতে পারে।

গণহত্যাকে কীভাবে সংজ্ঞায়িত করা যেতে পারে, সে বিষয়ে এই আইনজীবী জাতিসংঘের দেওয়া সংজ্ঞাটিই আবার তুলে ধরেছেন। তাঁর ভাষ্য, কোনো একটি গোষ্ঠীকে একেবারে নির্মূল করে দেওয়ার উদ্দেশ্যেই শুধু গণহত্যা চালানো হয়।

নাতালিয়া সেকরেতারেভা মনে করেন, দনবাসের ইউক্রেন গণহত্যা চালিয়েছে—এমন দাবি করার আগে দেশটির সরকার যে ওই এলাকায় নির্দিষ্ট জনগোষ্ঠীকে (রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের) ধ্বংসের উদ্দেশ্যে কাজ করেছে, তা রাশিয়াকে প্রমাণ করতে হবে।

নাতালিয়ার প্রশ্ন, ‘সত্যটা হলো সশস্ত্র সংঘর্ষের সময় যে মৃত্যুর ঘটনা ঘটে, তাকে গণহত্যা বলা যায় না। বিশেষ করে ওই এলাকা (দনবাস) ২০১৫ সাল থেকে ইউক্রেনের নিয়ন্ত্রণে নেই। একটি দেশ কীভাবে এমন এলাকায় গণহত্যা চালাতে পারে, যেখানে তারা ঢুকতে পারে না?’

কোনো সংঘাতে যদি ব্যাপকভাবে বেসামরিক লোকজন হতাহত হওয়ার ঘটনা না ঘটে, শুধু কিছু মানুষ হতাহত হয়, সে ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের অধীন তা মেনে নেওয়া যেতে পারে। এই সংজ্ঞার বাইরে প্রেক্ষাপট বিবেচনায় অন্য হামলাগুলোয় যুদ্ধাপরাধ, মানবতাবিরোধী অপরাধ অথবা গণহত্যার মতো ঘটনা ঘটতে পারে।

—নাতালিয়া সেকরেতারেভা, রাশিয়ার মানবাধিকার আইনজীবী

গণহত্যা নিয়ে রাশিয়ার প্রতিবেদন

ইউক্রেনে গণহত্যা নিয়ে একটি বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করে রাশিয়ার রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যম আরটি। দনবাসের চালানো নৃশংসতা নিয়ে জাতিসংঘে রুশ রাষ্ট্রদূতদের তোলা বিষয়গুলো রয়েছে সেখানে। এ ছাড়া প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ানে গোলাবর্ষণ, রকেট হামলা ও গোলাগুলিতে বেসামরিক লোকজনের হতাহত হওয়ার বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে।

প্রতিবেদনে উঠে আসা চিত্রের বেশির ভাগই ছিল ২০১৪ থেকে ২০১৫ সালের। সে সময় দনবাস নিয়ে সংঘাত চরম পর্যায়ে ছিল। তবে সাম্প্রতিক সময়ের কিছু বয়ানও প্রতিবেদনে রয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আরটির প্রতিবেদনে প্রত্যক্ষদর্শীদের দেওয়া তথ্যে দনবাসের বাসিন্দাদের মর্মান্তিক দুর্ভোগের চিত্র উঠে এসেছে। তবে সংঘাতে জড়িত দুই পক্ষেই বেসামরিক লোকজনের যে ক্ষতি হয়েছে, সে বিষয়ে প্রশ্ন তোলার তেমন সুযোগ নেই। এরপরও প্রতিবেদনে এমন চিত্র দেখা যায়নি, যাতে এই ইঙ্গিত পাওয়া যায় যে রুশভাষীদের বিরুদ্ধে ইউক্রেন সেনাদের অভিযান ছিল তাদের নির্মূল করতে সংগঠিত প্রচারণার অংশ।

রাসায়নিক হামলা চালালে চড়া মূল্য দিতে হবে

রটগার্স ইউনিভার্সিটির সেন্টার ফর দ্য স্টাডি অব জেনোসাইড অ্যান্ড হিউম্যান রাইটসের পরিচালক আলেকজান্ডার হিনটন বলেন, ২০১৪ সাল থেকে এটা বেশ পরিষ্কারভাবেই নথিভুক্ত হয়ে আছে, দনবাসের দুই পক্ষই (ইউক্রনের সেনাবাহিনী ও রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদী) মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে। একই সঙ্গে নিরপরাধ লোকজনকে হত্যা ও নির্যাতন করা হয়েছে। দনবাসের গণহত্যা চালানো হয়েছে—সে বিষয়ে কোনো শক্ত প্রমাণ নেই বলে মনে করেন আলেকজান্ডার হিনটন। তাঁর ভাষ্য, ‘গণকবর ও বেসামরিক লোকজনের ওপর হামলার বিষয়ে রাশিয়া অস্পষ্ট তথ্য দিয়েছে। তাদের কাছে যদি প্রমাণ থাকত, আপনি নিশ্চিত থাকতে পারেন, রাশিয়া তা অনেক আগেই সামনে আনত।’ দনবাসের ইউক্রেনের সেনাবাহিনী ও জাতীয়তাবাদী বাহিনীগুলো যুদ্ধাপরাধ করেছে—এমন অভিযোগ এনে ২০২১ সালে ইউরোপের মানবাধিকার আদালতে একটি মামলা করে রাশিয়া। ঘটনা তদন্তে দোনেৎস্ক ও লুহানস্ক গণপ্রজাতন্ত্রে বিশেষ কমিটিও গঠন করে দেশটি। এসব অঞ্চলে গণকবর থেকে ২৯২টি মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানায় কমিটিগুলো। তবে বিষয়টি নিয়ে ইউক্রেনের সংস্থা ট্রুথ হাউন্ডস বলছে, শুধু একটি সাক্ষাৎকারে এক ব্যক্তি দাবি করেছিলেন, তাঁর ভাইয়ের কবর সেখানে দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে অন্য কারও পরিবারের সদস্যদের কোনো বয়ান স্বাধীন গণমাধ্যম, তদন্ত কিংবা সাক্ষাৎকারে উঠে আসেনি। গণহত্যা, যুদ্ধাপরাধ, মানবতাবিরোধী অপরাধ ও জাতিগত নিধন বন্ধ করতে ২০০৫ সালে রেসপনসিবিলিটি টু প্রটেক্ট (পিটুপি) নীতি গ্রহণে একমত হয় জাতিসংঘের সব দেশ। ২০১১ সালে লিবিয়ায় পিটুপি জারি করা হয়। সে সময় দেশটিতে স্বৈরশাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির বিরুদ্ধে বিদ্রোহ চলছিল। পিটুপির আওতায় লিবিয়ার আকাশকে উড্ডয়ননিষিদ্ধ এলাকা (নো-ফ্লাই জোন) ঘোষণা করে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো।

সুরক্ষা দেওয়ার দায়িত্ব

গণহত্যা, যুদ্ধাপরাধ, মানবতাবিরোধী অপরাধ ও জাতিগত নিধন বন্ধ করতে ২০০৫ সালে রেসপনসিবিলিটি টু প্রটেক্ট (পিটুপি) নীতি গ্রহণে একমত হয় জাতিসংঘের সব দেশ। ২০১১ সালে লিবিয়ায় পিটুপি জারি করা হয়। সে সময় দেশটিতে স্বৈরশাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির বিরুদ্ধে বিদ্রোহ চলছিল। পিটুপির আওতায় লিবিয়ার আকাশকে উড্ডয়ননিষিদ্ধ এলাকা (নো-ফ্লাই জোন) ঘোষণা করে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো।

লিবিয়ায় পিটুপি নীতি বেসামরিক লোকজনকে রক্ষায় জারি করা হয়। পরে তা মূল উদ্দেশ্যকে পাশ কাটিয়ে দেশটিতে ক্ষমতার পরিবর্তনকে সহজ করেছিল। ইউক্রেনেও পুতিনের লক্ষ্য ক্ষমতার বদল ঘটানো। দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকে গদিচ্যুত করতে এরই মধ্যে ইউক্রেন সেনাদের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

রাশিয়ার হাতে যদি গণহত্যার সপক্ষে প্রমাণ থাকে, তাহলে দেশটি কেন তাদের দাবি জাতিসংঘে পাকাপাকিভাবে তোলেনি? রাশিয়ার এমনটিই করা উচিত ছিল বলে মনে করেন আলেকজান্ডার হিনটন।

হিনটনের ভাষ্য, রুশ ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও ভাষাভাষীদের ওপর ইউক্রেন হামলা করছে বলে দাবি করছে রাশিয়া। এদের রক্ষা করার বাধ্যবাধকতা রাশিয়ার রয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটি। মস্কোর এ বক্তব্য যৌক্তিক বলে মনে হতে পারে। কিন্তু আবারও বলতে হয়, নিজেদের দাবির পক্ষে শক্ত প্রমাণ দেয়নি তারা। এর কারণ মস্কোর উদ্দেশ্য জীবন বাঁচানো না; বরং ইউক্রেন দখল করা।

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  

মুজিব শতবর্ষ

সুরক্ষা অনলাই পোটার্ল

বাংলা পত্রিকাসমূহ

ইতিহাসের এই দিনে

বাংলাদেশের ৩৫০ ‍জন এমপিদের তালিকা

বিজ্ঞাপন

Web Deveoped By IT DOMAIN HOST