মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৩০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
Logo জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ কাল Logo নৌকাকে ছাড়িয়ে গেছে ‘স্বতন্ত্র’ Logo বগুড়ার ১৪ ইউপির ৭টিতে বিএনপি নেতাদের জয় Logo বিনা ভোটে নির্বাচিত হওয়া গণতন্ত্রের জন্য ভালো নয় Logo জনঘনত্ব ঢাকার চার এলাকায় Logo ১১ বছর পরে কন্যা সন্তানের মা হলেন তিশা Logo এসএসসি পরীক্ষায় সেরা ময়মনসিংহ, পিছিয়ে বরিশাল Logo করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে শাবনূর Logo লঞ্চের ৩০০ যাত্রীকে উদ্ধার করায় পুরস্কার ‘৫ হাজার টাকা’! Logo যেভাবে পাওয়া যাবে বুস্টার ডোজ Logo ‘বুস্টার’ ডোজ দেওয়া শুরু, নতুন নিবন্ধনের দরকার নেই Logo বাসাবোতে এক নারীর অমিক্রন শনাক্ত Logo অবশেষে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরিতে যোগ দিলেন আসপিয়া Logo মা–বাবা হচ্ছেন তিশা–ফারুকী Logo নিহতের রক্তে থাকা পায়ের ছাপে ধরা পড়লেন ‘খুনি’ Logo পরাজিত প্রার্থীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গিয়ে হামলায় আহত Logo নির্বাচন–পরবর্তী সহিংসতায় গুলিবিদ্ধ হয়ে আওয়ামী লীগ নেতা নিহত Logo চালক ঘুমাচ্ছিলেন, বাস ছিল সহকারীর হাতে: এনায়েত উল্যাহ Logo এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ বৃহস্পতিবার Logo ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ১ বছর ধরে ধর্ষণ- ধর্ষণ করার ভিডিও ভাইরাল Logo কানাডায় ঢুকতে না পারা মুরাদ হাসান দেশে ফিরলেন Logo গোয়েন্দা পুলিশের লকআপে আটক মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের রহস্যজনক মৃত্যু Logo আওয়ামী লীগের অবস্থা হতাশাজনক, বিএনপি অত্যন্ত দুর্বল: জি এম কাদের Logo সর্বদলীয় সংলাপ চাইলেন নুর Logo বিমানবন্দরে প্রোটোকল ভাঙলেন মুরাদ, যা বললেন কর্তৃপক্ষ Logo ‘লুকিয়ে’ বিমানবন্দর ছাড়লেন মুরাদ – অভ্যন্তরীণ টার্মিনাল দিয়ে বেরিয়ে এলেন মুরাদ হাসান Logo মিথিলার আগাম জামিন আবেদন, চেষ্টা করছেন ফারিয়াও Logo জামিন নিয়ে যা ভাবছেন তাহসান Logo সিদ্ধিরগঞ্জে ডেকে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেপ্তার ১ Logo নোয়াখালীতে নৌকার নির্বাচনী ক্যাম্পে অগ্নিসংযোগ, প্রতিবাদে বিক্ষোভ

আমেরিকাতে পড়তে আসা বাংলাদেশি মে’য়েরা দে’হ ব্য’বসায় জড়িয়ে যাচ্ছে। ইফতারির পর ভিডিওটা দেখবেন।

জনপ্রিয় খবর প্রতিনিধি : / ১২৫ বার পঠিত
সময়: বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১, ১:৫১ পূর্বাহ্ণ

উচ্চশিক্ষার জন্য পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীরই লক্ষ্য থাকে আমেরিকায় পাড়ি জমানো। আন্ডারগ্র্যাজুয়েট, মাস্টার্স, পিএইচডি বা আরও উচ্চতর শিক্ষার জন্য অনেকেরই পছন্দের তালিকায় প্রথমেই রয়েছে এই দেশ। উন্নত শিক্ষাব্যবস্থায় পড়াশোনা করে ভালো ক্যারিয়ার ও পেশাগত জীবনে সফলতা অর্জন করতে তাই অনেকেই বেছে নেয় আমেরিকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু আমেরিকায় পড়াশোনা করার শুধু ইচ্ছা আর স্বপ্ন থাকলেই কি চলে? আকাশছোঁয়া স্বপ্ন আর প্রবল ইচ্ছার মাঝে বাধা হয়ে দাঁড়ায় অনেক বাধা-বিপত্তি। এসব বাধা অতিক্রম করতে পারলে তবেই না দেখা মেলে কাঙ্ক্ষিত সেই সোনার হরিণের।
পৃথিবীর যে কয়টি দেশে স্টুডেন্ট বা শিক্ষার্থী ভিসা পাওয়া তুলনামূলক কঠিন তার মধ্যে আমেরিকা অন্যতম।

 স্টুডেন্ট ভিসায় আমেরিকায় আসতে হলে পার হতে হয় আইইএলটিএস, টোফেল, এসএটি, জিআরই, জি-ম্যাটের মতো প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা। সাধারণত এফ-ওয়ান ভিসার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা আমেরিকায় আসার আবেদন করে থাকে। তাই আমেরিকায় পড়তে আসার ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনুমতি, ভিসার আবেদনগ্রহণ, তহবিল ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ের ওপর নির্ভর করতে হয়।

পৃথিবীর প্রায় সব দেশ থেকেই আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী হিসেবে আমেরিকায় পড়াশোনা করতে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট ডেটা ওপেন ডোর নামে একটি সংস্থার গবেষণার জরিপ থেকে জানা যায়, ২০১৭-’১৮ সালে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে প্রায় ১০ লাখ ৯৪ হাজার ৭৯২ শিক্ষার্থী স্টুডেন্ট ভিসায় আমেরিকায় পড়াশোনা করতে এসেছে, যা বিগত বছর থেকে ১ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি। ২০১৬-১৭ সালে এই সংখ্যা ছিল প্রায় ১ লাখ ৭৮ হাজার ৮২২। এই সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। তবে সবচেয়ে আশার কথা হলো এই, অন্যান্য দেশের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকায় পড়াশোনা করতে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যাও বেড়েই চলছে।
আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী হিসেবে আমেরিকায় পড়াশোনা করতে আসা দেশের মধ্যে সবার ওপরে রয়েছে এশিয়ার দেশ চীন। ২০১৭-১৮ সালের জরিপ থেকে জানা যায়, মোট শিক্ষার্থীর প্রায় ৩৩ দশমিক ২ শতাংশই এসেছে চীন থেকে। সংখ্যার হিসেবে যা প্রায় ৩ লাখ ৬৩ হাজার ৩৪১ জন। চীনের জনসংখ্যা হিসাব করলে এই সংখ্যা হয়তো আহামরি কিছুই না। এরপরে যথাক্রমে রয়েছে ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া, সৌদি আরব ও কানাডা।
উচ্চশিক্ষার জন্য বাংলাদেশ থেকে বিদেশে পাড়ি জমানোর ঝোঁক শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনেক আগে থেকেই ছিল। তবে বর্তমানে দেশের বিভিন্ন পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে শিক্ষার্থীদের মধ্যে এই প্রবণতা আরও বাড়ছে। বাংলাদেশ থেকে উচ্চশিক্ষার জন্য শিক্ষার্থীরা মালয়েশিয়া, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জার্মানি, ভারতের মতো দেশে পাড়ি জমাচ্ছে।
আশার কথা হলো, উচ্চশিক্ষার জন্য বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা আমেরিকায় পড়াশোনা করার কঠিন বৈতরণী পার করতে সক্ষম হচ্ছে। যে কারণে আমেরিকায় পড়তে আসা বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। ২০১৭-১৮ সালের জরিপমতে, বাংলাদেশ থেকে আসা প্রায় ৭ হাজার ৪৯৬ জন শিক্ষার্থী আমেরিকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছে। ২০১৬-১৭ সাল থেকে এই সংখ্যা প্রায় ৪ দশমিক ৯ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এ সময় এই সংখ্যা ছিল প্রায় ৭ হাজার ১৪৩ জন।
সংখ্যার হিসেবে আমেরিকায় পড়তে আসা শিক্ষার্থীদের হিসাব করলে সারা বিশ্বে বর্তমানে বাংলাদেশের অবস্থান ২৪তম। গত পাঁচ বছরে বাংলাদেশ থেকে পড়তে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৫৩ শতাংশ ৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। যে হারে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকায় পড়তে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়ছে, আশা করা যায় কয়েক বছরের মধ্যেই বাংলাদেশ আরও ওপরের সারিতে অবস্থান করবে।
২০১৭-১৮ সালে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট লেভেলে বাংলাদেশ থেকে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা হচ্ছে ১ হাজার ৭৬৬, গ্র্যাজুয়েট লেভেলে ৪ হাজার ৬৪৯, নন-ডিগ্রি ৫৭ ও অপশনাল ট্রেনিংয়ে ১ হাজার ২৪ জন। ক্যালিফোর্নিয়া, নিউইয়র্ক, টেক্সাস, ম্যাসাচুসেটস, ইলিনয়, পেনসিলভানিয়া, ফ্লোরিডা, মিশিগানসহ আমেরিকার আরও অন্যান্য অঙ্গরাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশিরা পড়াশোনার সুযোগ করে নিচ্ছে।
পৃথিবীর অন্যান্য অনেক দেশের তুলনায় বাংলাদেশের আয়তন ও জনসংখ্যা হয়তো খুবই নগণ্য। কিন্তু অনেক সমস্যার মধ্যেও একটি উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে সক্ষম হচ্ছে। অনেক উন্নত দেশের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য আমেরিকায় পড়াশোনা করার সুযোগ তৈরি করে নিতে সক্ষম হচ্ছে। এসব শিক্ষার্থীই শিক্ষায় আলোকিত হয়ে একদিন দেশকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে—এটাই সবার প্রত্যাশা।

আরও অন্যান্য

উচ্চশিক্ষার জন্য পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীরই লক্ষ্য থাকে আমেরিকায় পাড়ি জমানো। আন্ডারগ্র্যাজুয়েট, মাস্টার্স, পিএইচডি বা আরও উচ্চতর শিক্ষার জন্য অনেকেরই পছন্দের তালিকায় প্রথমেই রয়েছে এই দেশ। উন্নত শিক্ষাব্যবস্থায় পড়াশোনা করে ভালো ক্যারিয়ার ও পেশাগত জীবনে সফলতা অর্জন করতে তাই অনেকেই বেছে নেয় আমেরিকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু আমেরিকায় পড়াশোনা করার শুধু ইচ্ছা আর স্বপ্ন থাকলেই কি চলে? আকাশছোঁয়া স্বপ্ন আর প্রবল ইচ্ছার মাঝে বাধা হয়ে দাঁড়ায় অনেক বাধা-বিপত্তি। এসব বাধা অতিক্রম করতে পারলে তবেই না দেখা মেলে কাঙ্ক্ষিত সেই সোনার হরিণের।
পৃথিবীর যে কয়টি দেশে স্টুডেন্ট বা শিক্ষার্থী ভিসা পাওয়া তুলনামূলক কঠিন তার মধ্যে আমেরিকা অন্যতম।

 স্টুডেন্ট ভিসায় আমেরিকায় আসতে হলে পার হতে হয় আইইএলটিএস, টোফেল, এসএটি, জিআরই, জি-ম্যাটের মতো প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা। সাধারণত এফ-ওয়ান ভিসার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা আমেরিকায় আসার আবেদন করে থাকে। তাই আমেরিকায় পড়তে আসার ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনুমতি, ভিসার আবেদনগ্রহণ, তহবিল ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ের ওপর নির্ভর করতে হয়।

পৃথিবীর প্রায় সব দেশ থেকেই আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী হিসেবে আমেরিকায় পড়াশোনা করতে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট ডেটা ওপেন ডোর নামে একটি সংস্থার গবেষণার জরিপ থেকে জানা যায়, ২০১৭-’১৮ সালে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে প্রায় ১০ লাখ ৯৪ হাজার ৭৯২ শিক্ষার্থী স্টুডেন্ট ভিসায় আমেরিকায় পড়াশোনা করতে এসেছে, যা বিগত বছর থেকে ১ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি। ২০১৬-১৭ সালে এই সংখ্যা ছিল প্রায় ১ লাখ ৭৮ হাজার ৮২২। এই সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। তবে সবচেয়ে আশার কথা হলো এই, অন্যান্য দেশের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকায় পড়াশোনা করতে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যাও বেড়েই চলছে।
আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী হিসেবে আমেরিকায় পড়াশোনা করতে আসা দেশের মধ্যে সবার ওপরে রয়েছে এশিয়ার দেশ চীন। ২০১৭-১৮ সালের জরিপ থেকে জানা যায়, মোট শিক্ষার্থীর প্রায় ৩৩ দশমিক ২ শতাংশই এসেছে চীন থেকে। সংখ্যার হিসেবে যা প্রায় ৩ লাখ ৬৩ হাজার ৩৪১ জন। চীনের জনসংখ্যা হিসাব করলে এই সংখ্যা হয়তো আহামরি কিছুই না। এরপরে যথাক্রমে রয়েছে ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া, সৌদি আরব ও কানাডা।
উচ্চশিক্ষার জন্য বাংলাদেশ থেকে বিদেশে পাড়ি জমানোর ঝোঁক শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনেক আগে থেকেই ছিল। তবে বর্তমানে দেশের বিভিন্ন পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে শিক্ষার্থীদের মধ্যে এই প্রবণতা আরও বাড়ছে। বাংলাদেশ থেকে উচ্চশিক্ষার জন্য শিক্ষার্থীরা মালয়েশিয়া, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জার্মানি, ভারতের মতো দেশে পাড়ি জমাচ্ছে।
আশার কথা হলো, উচ্চশিক্ষার জন্য বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা আমেরিকায় পড়াশোনা করার কঠিন বৈতরণী পার করতে সক্ষম হচ্ছে। যে কারণে আমেরিকায় পড়তে আসা বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। ২০১৭-১৮ সালের জরিপমতে, বাংলাদেশ থেকে আসা প্রায় ৭ হাজার ৪৯৬ জন শিক্ষার্থী আমেরিকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছে। ২০১৬-১৭ সাল থেকে এই সংখ্যা প্রায় ৪ দশমিক ৯ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এ সময় এই সংখ্যা ছিল প্রায় ৭ হাজার ১৪৩ জন।
সংখ্যার হিসেবে আমেরিকায় পড়তে আসা শিক্ষার্থীদের হিসাব করলে সারা বিশ্বে বর্তমানে বাংলাদেশের অবস্থান ২৪তম। গত পাঁচ বছরে বাংলাদেশ থেকে পড়তে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৫৩ শতাংশ ৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। যে হারে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকায় পড়তে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়ছে, আশা করা যায় কয়েক বছরের মধ্যেই বাংলাদেশ আরও ওপরের সারিতে অবস্থান করবে।
২০১৭-১৮ সালে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট লেভেলে বাংলাদেশ থেকে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা হচ্ছে ১ হাজার ৭৬৬, গ্র্যাজুয়েট লেভেলে ৪ হাজার ৬৪৯, নন-ডিগ্রি ৫৭ ও অপশনাল ট্রেনিংয়ে ১ হাজার ২৪ জন। ক্যালিফোর্নিয়া, নিউইয়র্ক, টেক্সাস, ম্যাসাচুসেটস, ইলিনয়, পেনসিলভানিয়া, ফ্লোরিডা, মিশিগানসহ আমেরিকার আরও অন্যান্য অঙ্গরাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশিরা পড়াশোনার সুযোগ করে নিচ্ছে।
পৃথিবীর অন্যান্য অনেক দেশের তুলনায় বাংলাদেশের আয়তন ও জনসংখ্যা হয়তো খুবই নগণ্য। কিন্তু অনেক সমস্যার মধ্যেও একটি উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে সক্ষম হচ্ছে। অনেক উন্নত দেশের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য আমেরিকায় পড়াশোনা করার সুযোগ তৈরি করে নিতে সক্ষম হচ্ছে। এসব শিক্ষার্থীই শিক্ষায় আলোকিত হয়ে একদিন দেশকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে—এটাই সবার প্রত্যাশা।

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

মুজিব শতবর্ষ

সুরক্ষা অনলাই পোটার্ল

বাংলা পত্রিকাসমূহ

ইতিহাসের এই দিনে

বাংলাদেশের ৩৫০ ‍জন এমপিদের তালিকা

বিজ্ঞাপন

Web Deveoped By IT DOMAIN HOST