বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
Logo দাখিল পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ, পরীক্ষা শুরু ১৪ নভেম্বর Logo দাফনের সাড়ে ৪ মাস পেরুলেও কবর থেকে অক্ষত অবস্থায় নারীর মরদেহ উদ্ধার Logo শ্রীপুর কলেজ ক্যাম্পাসে অস্ত্রের মহড়া Logo মানি লন্ডারিং প্রমাণ না হলে সাজা ৭ বছর Logo সাংবাদিকদের মনে ভয়ভীতি সৃষ্টি করতেই নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলব Logo টাকা ফেরতে ইভ্যালি, ই–অরেঞ্জের গ্রাহকেরা যা করতে পারেন, তবে… Logo সর্বোচ্চ সতর্কতা ই-কমার্সে Logo দুদকের ২০ মামলায় আসামি হচ্ছেন সাবেক সিনিয়র সচিবসহ ৭৫ জন Logo আওয়ামী লীগ নেতার মোটরসাইকেল শোডাউনে হামলা, আহত ৫ Logo সরকারি দলের নির্বাচন প্রস্তুতিকে ফাঁদ হিসেবে দেখছে বিএনপি Logo সিরিজ ষড়যন্ত্রের গোপন সভা করেছে বিএনপি : সেতুমন্ত্রী Logo এক হাজার কোটি টাকা দেনার বিপরীতে ইভ্যালি’র ব্যাংকে মাত্র ৩০ লাখ টাকা Logo ছেলে বাবার চেয়ে ২ বছরের বড়, এলাকায় তোলপাড়! Logo খালেদার মুক্তির মেয়াদ বাড়ছে এ সপ্তাহে, সম্মতি প্রধানমন্ত্রীর Logo নুসরাতকে ‘নারীবাদী বিপ্লবী’ ভেবেছিলেন; দ্রুতই ভুল ভাঙল তসলিমার Logo কবুতর: বাংলাদেশে বাড়ছে দামী জাতের পালন, হচ্ছে কবুতরের রেসিং, রয়েছে কবুতরের খামার Logo চীনা নভোচারীরা তাদের সবচেয়ে দীর্ঘ মহাকাশ মিশন শেষে পৃথিবীতে ফিরেছেন Logo পরীমনি: আদালতে হাজিরা দেবার পর হাতের নতুন বার্তা নিয়ে জল্পনা কল্পনা Logo হাইটেক পার্কে কী হচ্ছে দেখতে যাবেন পরিকল্পনামন্ত্রী Logo কমেছে করোনার রোগী, স্বস্তিতে চিকিৎসক-নার্সরা । রোগীর চাপ নেই। পড়ে আছে ফাঁকা শয্যা। আজ সকালে দিনাজপুর এম আবদুর রহিম হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার এইচডিইউতে Logo দিনাজপুরে অভিযানে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫ Logo চট্টগ্রামে দ্বিতীয় কারাগারের জন্য জমি পাওয়া যাচ্ছে না Logo খেলা হবে ২০ তারিখ নৌকা মার্কায় ভোট দিন। Logo নাইক্ষ্যংছড়িতে দেশীয় চোলাই মদ সহ আটক-২ Logo গাজীপুর মহা নগরে আট লক্ষ টাকা মুক্তিপনের দাবীতে অপহরন কারী কে গ্রেপ্তার। Logo মা হওয়ার ইচ্ছা প্রভা’র, পাচ্ছে না সন্তানের বাবা! Logo নৌকার ধাক্কায় ভেঙে পড়ল ২২ বছরের পূুরানো সেতু! Logo করোনায় চাকরি হারিয়ে সফল উদ্যোক্তা জবির সাবেক শিক্ষার্থী! Logo ফ্লাইওভার থেকে বাইক নিয়ে ছিটকে পড়লেন যুবক, মর্মান্তিক পরিণতি Logo খালেদাকে বিদেশে নিতে অপেক্ষা সবুজ সংকেতের

আওয়ামী লীগের জার্সি গায়ে দিয়ে যারা হেফাজতের হয়ে খেলছেন; তাদের শেষ রক্ষা হবে তো!

জনপ্রিয় খবর প্রতিনিধি : / ৪৫ বার পঠিত
সময়: শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২১, ৬:০৪ অপরাহ্ণ

সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সব ঝড় এলোমেলো করে না। কিছু ঝড় জীবনে জমে থাকা জঞ্জালকে পরিস্কার করে চলার পথটাকে সহজ করে দেয়। বর্তমান সরকার, প্রশাসন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং এর সহযোগী ও অংগ সংগঠনে সরাসরি হেফাজতমনস্ক এবং পৃষ্ঠপোষকতাকারীর সংখ্যা নেহায়েত কম না। ছায়ার সাথে যুদ্ধ করার আগে নিজের ঘর কালসাপ মুক্ত করা উচিত।

নেতা বানানোর সময় পকেটের লোক খোঁজেন! কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত যে বিভক্তি সেটার দাম বেশ চড়া মূল্যেই চুকাতে হবে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং কিশোরগঞ্জ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কি শিক্ষা নেবে? প্রতিটা জেলায় ৭/৮ টা করে গ্রুপ। এক গ্রুপ মার খায়, তাদের বাড়ি ঘরে হামলা হয়। অন্য গ্রুপ গুলো তখন নিরাপদ দূরত্বে বসে হাততালি দেয়। তাদেরও কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। পরবর্তীতে তারাও হামলা এবং ভাঙ্গচুরের শিকার হয়েছে। ‌অথচ একসাথে যদি রুখে দাঁড়াতো, হেফাজত লেজ গুটিয়ে পালাতে বাধ্য হতো। যত ইচ্ছে ভাইলীগ করেন সমস্যা নেই। কিন্তু সংকটের সময় বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগটা করেন। শেখ হাসিনার কর্মী হয়ে মাঠে নামেন। দেশকে নিয়ে সকল ষড়যন্ত্র রুখে দেন। সময় গেলে সাধন হবে না!
গত কয়েক বছর ধরে একটা শ্রেণির আবির্ভাব ঘটেছে ; যারা চাকুরির সুবাদে আওয়ামী লীগ করে। তারা কথায় কথায় বলে আমি ছাত্রলীগের নেতা ছিলাম। ওমুক এমপি মন্ত্রী আমার আত্মীয়। দেশে যখন বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা হয়, জামায়াত শিবির, হেফাজত স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দিনে আওয়ামী লীগের পার্টি অফিস আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়, আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের নেতা কর্মীদের বাড়ি ভাংচুর করে। তখন এরা অনলাইন অফলাইনে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করে।

এদেরকে যদি প্রশ্ন করা হয় আপনারা প্রতিবাদ করেন না কেন? কেন কিছু লেখেন না, বলেন না? তখন তারা বলে সরকারি চাকরি করে রাজনীতি করা যায় না। গত এক যুগে এরা সবচেয়ে বেশি সুবিধাবাদী। সবচেয়ে বাজে ব্যাপার হলো কিছু নেতা এইসব সরকারী সুবিধাবাদীদের দালালি করে।

আইরনী হলো -হেফাজতকে শেখ হাসিনার ঘাড়ে উঠিয়ে দিয়েছিলো আওয়ামী লীগের কিছু লোভী নেতা, সিভিল এবং মিলিটারী আমলা। এই ভুলের মাশুল আরো অনেক যুগ দিতে হবে। নূরকে আওয়ামী লীগ নেতার ছেলে বলে শেখ হাসিনাকে গেলানো হলো। সেই নূর তো আপনাদের মুসলমানিত্ব নিয়ে টান দিলো! স্বার্থপর, মাথামোটা, লোভী নেতা এবং আমলা দেশ, জাতি এবং দলের জন্য চরম ক্ষতিকর। শেখ হাসিনার টিমে অধিকাংশই এখন সুশীল। দুই একজন মারমুখী ব্যাটসম্যান দরকার। যারা স্লগ ওভারে নেমে দলের প্রয়োজনে ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে জেতাবেন।

দোলাইপাড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য কবে স্থাপন হবে? বেশ কয়েকমাস তো হয়ে গেলো! এটা বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। আপোষ না সংগ্রাম? বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের অবমাননাকারীদের বিরূদ্ধে রাজধানীর দোলাইরপাড়ে গৌরব’৭১ এর মহাসমাবেশ ছিল গত ৫ ডিসেম্বর। ঐ সমাবেশটা আয়োজন করতে বেশ বাধার সম্মুখীন হতে হয়েছিলো আয়োজকদের। বাধাটা কে দিয়েছিলো জানেন? আওয়ামী লীগের এক শীর্ষনেতা। প্রোগ্রামের আগের রাতে এবং প্রোগ্রামের দিন সকালে জনে জনে ফোন করে প্রোগ্রামে যেতে মানা করা হয়েছিলো। এতকিছুর পরেও শেষপর্যন্ত প্রোগ্রামটা সফল হয়েছিলো। আওয়ামী লীগেরই আরেক শীর্ষ নেতা ঢাল হয়ে পাশে দাঁড়িয়েছিলেন সেদিন।

এখন প্রশ্ন হলো বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনেপ্রাণে হেফাজত লীগ ধারণকারী নেতাদেরকে প্রমোট করবে নাকি বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ যারা করে সেই নেতাদেরকে সামনে এগিয়ে দেবে। শেখ হাসিনার ঘাড়ে যারা হেফাজতকে তুলে দিয়েছে তাদের নিয়ে ভাবার সময় নিশ্চয়ই এখন এসেছে ! দুধকলা দিয়ে পোষা সাপটা ‌অজগর হয়ে সব গিলে খেতে চাইছে। গোটা রাষ্ট্রটা এদের পেটে চালান হওয়ার আগেই ঘুম থেকে জাগেন।

আপোষকামীতায় ভেসে যাচ্ছে সব সব অর্জন! দেশটা আদর্শহীন ভণ্ডদের রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে দিনদিন। প্রিয় স্বদেশ এখন আলোর ইতিহাস থেকে মুখ ঘুরিয়ে হেঁটে চলেছে অন্ধকারের দিকে। এই জনপদে এখন মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে কথা বলা যাবে, মুক্তিযোদ্ধাদের গালাগালি করে চরিত্র হনন করা যায়, জাতীয় সংগীতের বিরুদ্ধেও বলা যায়! রাষ্ট্রের আইন-কানুন এমনকি রাষ্ট্রকেও অস্বীকার করা যায়! কওমী মাদ্রাসায় শিশু-কিশোরদের বলাৎকার করা যায় এবং হত্যাও করা যায়! শুধু ধর্মব্যবসায়ী তথাকথিত ‘ইসলামের রক্ষক’ হেফাজতের কোনো নেতার বিরুদ্ধে কোনো কথা বলা যায় না, কোনো সমালোচনা করা যায় না। করলেই… মস্তক চাহিয়া মিছিল হয়! চাপাতির আঘাতে রক্তের লালে রাজপথ কিংবা বাড়ি, ঘর এবং ঘরের দেয়াল নতুন আলপনায় সেজে ওঠে! হায়রে ৩০ লাখ শহীদের বাংলাদেশ!

যেকোন জাতীয় দিবসে ৩২ নম্বরের জনস্রোত দেখে যে কেউ খুশি হবেন এবং আবেগে আপ্লুত হতে পারেন। তবে এই সংখ্যার একশো ভাগের এক ভাগও যদি বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য অবমাননাকারী মামুনুল গংদের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতো তাহলে এই ধর্মান্ধ গোষ্ঠীর ধৃষ্টতা এবং আস্ফালন জাতির দেখতে হতো না!

আশার কথা হলো মামুনুল সহ হেফাজতের অন্যান্য নেতাদের গ্রেফতার। রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্র ও নাশকতার সাথে জড়িত সকলকে আইন এবং বিচারের আওতায় আনার একটা প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। শুধু গ্রেফতার করলেই হবে না। রাষ্ট্রবিরোধী জঙ্গি কর্মকাণ্ডে যুক্ত থাকায় হেফাজত ইসলামকে দেওয়া রেলওয়ের ৩২ কোটি টাকার জমি ফেরত নেওয়া হোক। কওমি সনদের স্বীকৃতি বাতিল করা হোক। ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধ করা হোক। সরকারী অনুমোদনহীন মাদ্রাসা অনতিবিলম্বে বন্ধ করা হোক। বাবুনগরী সহ হেফাজতের শীর্ষ নেতাদের রাষ্ট্রবিরোধী এবং জঙ্গী কর্মকাণ্ডের জন্য দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা হোক।

সাইবারজগৎ অপশক্তির দখলে। সেখানে চলছে নিত্যনতুন গুজব আর অপপ্রচার। তাদের এই সীমাহীন মিথ্যাচারের উপযুক্ত জবাব দেওয়ার জন্য একটা শক্ত সাইবার ইউনিট দরকার। বেতনভুক্ত কর্মচারী বা সহমত ভাই না। মনেপ্রাণে দেশ এবং বঙ্গবন্ধুকে ধারণ করে, মেধাবী, প্রখর বোধসম্পন্ন একদল ক্ষ্যাপাটে ছেলে বড্ড বেশি প্রয়োজন এই মুহূর্তে। শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফল এখন অন্যের ঘরে। আফসোস! অমিত সম্ভাবনাময় তারুণ্যকে মোটিভেট করতে ব্যর্থ হয়েছে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি। সামনে ঘোর অন্ধকার!

গত কয়েকদিন ধরে রাজপথ এবং অনলাইনে সেই পুরোনো পাপীরাই। এই যে এত এত নায়ক/নায়িকা, গায়ক/গায়িকা, সেলিব্রেটিরা, উপকমিটির শত শত নেতা তারা কি সবাই শীতনিদ্রায়!

এখনো নিজের জায়গা জমি বিক্রি করে মানুষ আওয়ামী লীগ করে; মায়ের কানের দুল বন্ধক রেখে ছাত্রলীগ করে। এই পাগল কর্মীরাই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ‘প্রাণ’। কোন শঠ নেতার উপর ভর করে আওয়ামী লীগ টিকে নেই। আওয়ামী লীগের শেকড় অনেক গভীরে। প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম এই প্রেম বহমান।

নগরে আগুন লাগলে দেবালয় কি অক্ষত থাকে? সংকটের সময় বিশ্বাসযাগ্য নেতার অভাব একটু বেশি করেই চোখে পড়ে। মানুষ শেষপর্যন্ত নেতার উপর ভরসা রাখতে চায়; কোন অভিনেতাকে তারা বিশ্বাস করে না। সবকিছু শেষ হয়ে যাওয়ার আগেই প্রতিরোধ গড়ে তুলুন। শুভবোধসম্পন্ন অসংখ্য মানুষ এখনো বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দিকে তাকিয়ে আছে। এই দমবন্ধ করা পরিবেশ, ধর্মান্ধদের আস্ফালন তাদের হৃদয়ে রক্ত ঝরায়। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের লাখ লাখ নেতাকর্মী একটা ডাক এবং সঠিক নির্দেশনার অপেক্ষায়। আওয়ামী লীগের জার্সি গায়ে দিয়ে যারা হেফাজতের হয়ে খেলছেন; তাদের শেষ রক্ষা হবে তো !

লেখক: সম্পাদক, বিবার্তা২৪ডটনেট।


সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

ফেসবুকে আমরা

মুজিব শতবর্ষ

সুরক্ষা অনলাই পোটার্ল

বাংলা পত্রিকাসমূহ

ইতিহাসের এই দিনে

বাংলাদেশের ৩৫০ ‍জন এমপিদের তালিকা

বিজ্ঞাপন

Web Deveoped By IT DOMAIN HOST